আমরা প্রতিনিয়ত কোন না কোন কাজে ইন্টারনেট ব্যবহার করে তথ্য আদান-প্রদান থেকে শুরু করে, শিক্ষা, গবেষণা, ক্রয়-বিক্রয়, লেনদেন নানা কাজ করে থাকি। এভাবে আমরা World Wide Web (www) এর ইন্টানেট সিস্টেম ব্যবহার করি। আমরা প্রতিনিয়ত যে সিস্টেম ব্যবহার করি তা হচ্ছে ওয়ার্ড ওয়াইড ওয়েব এর একটি অংশ মাত্র, যাকে বলা হয় Surface web। এর বৃহৎ একটা অংশ আমাদের নিকট থেকে লুকায়িত, যা আমরা চাইলেই সহজেই দেখতে পারি না বা ব্যবহার করতে পারি না। এমন কিছু অংশের মধ্যে Dark web, Dark net ও Deep web। এর বিশেষ কিছু অংশে আমরা প্রবেশ পারলেও এর বড় একটা অংশ আমাদের ধরা-ছোয়ার বাইরে। আমরা অনেকভাবে Dark web, Dark net ও Deep web ওয়েব সর্ম্পকে শুনে থাকতে পারি, কিন্তু এর বিস্তারিত আজও অনেকের কাছে অজানা। তাই আজ আমরা আপনাকে জানাবো ডার্ক ওয়েব ও ডার্ক নেট কি? কিভাবে কাজ করে ? এর সকল বিস্তারিত তথ্য, আমাদের সংঙ্গেই থাকুন।

Dark Web বা Dark Net কি?

What is dark net

ডার্ক ওয়েব (Dark Web) বা ডার্ক নেট (Dark Net) একই অর্থে ব্যবহৃত হয়। ডার্ক ওয়েব বা ডার্ক নেট ওয়ার্ড ওয়াইড ওয়েব এর একটি উপাদান বা অংশ যা সাধারণ ব্যবহারকারীদের কাছে থেকে লুকায়িত।

ডার্ক ওয়েব মূলত একটি “Deep web” এর অংশ যার কোন অংশে Search Engine প্রবেশ করতে পারে না। ফলে আমরা প্রতিদিন Surface ইন্টারনেটের মাধ্যমে যা দেখি তা ওয়েব সিস্টেমের কিছু অংশ মাত্র, এর বেশির অংশই সাধারণ ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে লুকায়িত।

আমরা প্রতিনিয়ত Google, Yahoo, Bing, Amazon অথবা অন্যান্য Search Engine ব্যবহার করে যা দেখি বা ব্যবহার করি তা World Wide Web সিস্টেমের মাত্র ৪%। আমরা জানি পৃথিবীর ৩ ভাগ পানি আর একভাগ স্থল, কিন্তু আজও আমরা অনেকে জানি না ৩ ভাগ পানির মধ্যে কি কি আছে।

তেমনি আজও আমাদের কাছে অজানা যে ডার্ক ওয়েব ও Deep web এ কি কি আছে বা থাকতে পারে। আর পুরো ইন্টারনেট সিস্টেমের যে অংশে আমরা প্রবেশ করতে পারি না বা দেখতে পারি না তাই হচ্ছে ডার্ক ওয়েব বা ডার্ক নেট, অর্থাৎ পুরো সিস্টেমের বাকি ৯৬ শতাংশ।

ডার্ক ওয়েবে কি কি আছে!

ইতোপূর্বে আমরা জেনেছি যে Dark web কি। ডার্ক ওয়েব সাধারণ Surface ওয়েবের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন, কেননা এখানে ওয়েব সাইটগুলো (Websites) Surface ওয়েবের মত .org, .net, .com, .gov এর মতো Extension থাকে না।

নামগুলো একটু বড় ও হিজিবিজি হতে পারে ও এর শেষে অবশ্যই .onion এক্সটেনশন থাকে। যা Highly encrypted ব্যবহার করা হয় ডোমোইন নামের ক্ষেত্রে। সেই সাথে ওযেব সাইটের IP Address গুলো সু-কৌশলে অনেক গোপনীয়তায় লুকিয়ে রাখা হয়।

যার ফলে সাধারণ Google, Bing, Amazon ও অন্যান্য Search Engine এই ওয়েব সাইটগুলোকে Index করাতে পারে না। আপনি জেনে অবাক হবেন যে বড় বড় কোম্পানি যেমন Facebook, Google, BBC news এদেরও কিন্তু ডার্ক ওয়েবে ওয়েব সাইট আছে।

ডার্ক ওয়েবের ওয়েব সাইটগুলো ব্যবহার করলে সরকারী-বেসরকারী কোন সংস্থা আপনার অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারবে না বা আপনাকে ট্রেস করতে পারবে না।

ডার্ক ওয়েব কেন ব্যবহার করা হয়?

Internet System

Dark web এ Highly encrypted Domain name ব্যবহার করা হয় ও সেই সাথে ওয়েব সাইটগুলোর IP Address সর্ব-সাধারণের কাছ থেকে অত্যান্ত কৌশলে লুকিয়ে রাখা হয়।

যাতে করে Surface ওয়েব এই সাইটগুলোকে Index করতে পারেনা বা খুঁজে পায় না। Dark web এর মূল উদ্দেশ্য হলো internet কে anonymous ও private ভাবে ব্যবহার করা।

যাতে করে কোন সংস্থা এই ওয়েব সাইটগুলোর ব্যবহারকারী ও ওয়েব সাইটগুলোর আসল মালিককে খুঁজে না পায়। ডার্ক ওয়েবের মধ্যে যে ওয়েব সাইটগুলো রয়েছে তা প্রকাশ্যে (publicly) উপলভ্য করানো হয় না।

এর ফলে কোন সরকারী সংস্থা ও গোয়েন্দা সংস্থা ব্যবহারকারীর অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারে না বা ট্রেস করতে পারে না।

আর এই কারণে যত ধরনের নিষিদ্ধ কার্যকলাপ এর অধিকাংশ ডার্ক ওয়েব এর মাধ্যমে হয়ে থাকে। মাদক থেকে শুরু করে বিভিন্ন ক্ষতিকর ডিভাইজ, অস্ত্র, পর্নোগ্রাফি, বিভিন্ন দেশের ব্যান্ড করা মুভি, পাইরিসি মুভি, গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, ক্রেডিট কার্ডের তথ্য, মাদক কারবারি-চোরাকারবারীদের বিচরন ক্ষেত্র হচ্ছে dark web বা dark net। Hacker দের অভয়াশ্রম বলা হয় dark web কে।

এতে বিভিন্ন ধরনের Hacker Community এর মাধ্যমে বিশ্বব্যাপি হ্যাকারদের বিশাল এক নেটওয়ার্ক গড়ে উটেছে এই ডার্ক ওয়েবের মাধ্যমে।

তবে বেশির ভাগ মানুষই dark web ব্যবহার করে ক্ষতিকর ভাইরাস, ক্ষতিকর প্রোগ্রাম সম্পর্কে জানতে বা সেগুলি ডাউনলোড করতে ও ব্যবহার শিখতে।

সাধারণত ক্ষতিকর প্রোগ্রাম বা সফটওয়্যার Surface Web এ পাওয়া যায় না বা Surface web এর Search engine গুলো এমন ক্ষতিকর প্রোগ্রাম বা সফটওয়্যারগুলো Index করে না।

এর ফলে ডার্ক ওয়েব হয়ে উঠেছে অপরাধিদের আতুর ঘর ও এই সব ক্ষতিকর জিনিসের প্রাপ্তির ঠিকানা। শুধু অপরাধিদের আতুর ঘরেই নয় বড় বড় ও বিখ্যাত গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বিভিন্ন তথ্য আদান-প্রদান, লেনদেনের জন্য এই ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করে। এতে করে কোন সংস্থা তাদের টার্গেট করতে পারে না বা তাদের অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারে না।

ডার্ক ওয়েব কিভাবে ব্যবহার করা হয়?

Surface web browser

প্রত্যেকটা জিনিসের একটা যেমন ভালো দিক আছে আবার খারাপ দিকও রয়েছে। অর্থাৎ মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ, dark web ব্যবহার করে যেমন ক্ষতিকর কোন কিছু করা যায়, ঠিক তেমনি এটি ব্যবহার করে অনেক গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা গোপনীয়তার সাথে তাদের মধ্যে তথ্য আদান-প্রদান করেন।

যা সর্ব-সাধারণের থেকে অত্যান্ত গোপনিয়তা বজায় রেখে সহজে করা যায়। আমরা আপনাকে ডার্ক ওয়েব ব্যবহারে উংসাহ প্রদান করবো না, এটি ব্যবহারে আপনি অভ্যাস্ত হয়ে উঠলে তা আপনার জন্য আশা ব্যঞ্জক হবে না, কেননা আমাদের দেশে তা ব্যবহারে আইনি প্রতিবন্ধকতা রয়েছে। তাই ডার্ক ওয়েব ব্যবহারে আমরা আপনাকে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছি।

Dark web এর ওয়েব সাইটগুলো .onion এক্সটেনশন যুক্ত Highly encrypted দ্বারা তৈরি। এর ফলে সাধারণ ওয়েব Browser যেমন Google chrome, Opera, Firefox ইত্যাদি ব্যবহার করে ডার্ক ওয়েব এর ওয়েব সাইট বা ফোরামগুলোতে প্রবেশ করা বা access করা যায় না।

Dark net এর ওয়ব সাইটগুলোতে access করতে বিশেষ web browser এর প্রয়োজন পরে। যার মধ্যে tor browser অন্যতম। Tor browser ব্যবহার করে খুব সহজেই ডার্ক ওয়েব এর ওয়েব সাইটগুলোতে অ্যাক্সেস করা যায়।

Dark Web কিভাবে প্রবেশ করবেন!

Dark web একটা tor networkভিত্তিক ইন্টারনেট সিস্টেম। যা tor browser ছাড়া ডার্ক ওয়ের বা ডার্ক নেটের কোন ওয়েব সাইট বা ফোরামে আপনি Access করতে পারবেন না।

ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করা অত্যান্ত সহজ, ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করতে শুধুমাত্র tor browser টি ডাউনলোড করে ইন্সটল করলে, আপনি ইন্টারনেটের মাধ্যমে ডার্ক ওয়েবের সকল ওয়েব সাইট ও ফোরামগুলোতে access করতে পারবেন।

ডার্ক ওয়েবের ওয়েবসাইটগুলো কিভাবে খুঁজে পাবেন:

Google Search Engine

Tor browser এর মাধ্যমে আমরা সহজেই ডার্ক ওয়েব এ ডুকতে পারি, কিন্ত ডার্ক ওয়েবের ওয়েব সাইটগুলো খুঁজে পাওয়া অত্যন্ত জটিল ও কষ্টসাধ্য ব্যাপার। Tor network এর Search Engine হচ্ছে duckduckgo যেটি ব্যবহার করেই আপনি ডার্ক ওয়েবের ওয়েব সাইটগুলো খুঁজবেন।

আমরা যেমন ওয়েব সাইটের SEO করতে বিভিন্ন Directory Submission ওয়েব সাইট খুঁজতে Google এ Search করি, তেমনি এখানেও “Top dark web website list” | “Top dark web forum websites” এই ধরনের কী-ওয়ার্ড দিয়ে duckduckgo তে সার্চ করতে পারি।

তবে কোন ওয়েব সাইটের প্রবেশ করার আগে অবশ্যই দেখে নিবেন যে ডোমেইন নামের শেষে .onion এক্সটেনশনটি আছে কিনা। কেননা .onion এক্সটেনশন দ্বারাই ডার্ক ওয়েবের ওয়েব সাইটগুলো চিহ্নিত করা যায়।

ডার্ক ওয়েব সম্পর্কে জানতে, শিখতে বা কোন বিশেষ কিছু খুঁজে পেতে আপনি ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করতে পারেন তবে এটি যেহেতু আমাদের দেশের আইন সংস্থা কর্তৃক নিষিদ্ধ কার্যকলাপের মধ্যে পড়ে, তাই অতি প্রয়োজন না হলে ডার্ক ওয়েব বা ডার্ক নেট ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

ডার্ক ওয়েবে অনেক ক্ষতিকর প্রোগ্রাম পাওয়া যায়, তাই কোন কিছু ডাউনলোড করতে হলে বিশেষ সতর্কতা অবল্বণ করুন, নয়তো আপনার সিস্টেমটি হ্যাকারদের দখলে চলে যেতে পারে।

ডার্ক ওয়েবের মাধ্যমে কখনো লেনদেন করবেন না, কেননা Dark web এ ক্রেতা-বিক্রেতাদের ট্রেস করার কোন উপায় নেই। আর যেহেতু ট্রেস করবার কোন উপায় নেই, তাই এতে ভূয়া ও নানান প্রলোভন মুলক জিনিসের বিক্রয় দেখা যায়।

তাই কোন ধরণের ক্ষতির মুখোমুখি না হতে চাইলে, সর্বপরি আমরা বলতে পারি এই ধরনের নেটওয়ার্ক সিস্টেম ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন ও সতর্ক থাকুন।

আমাদের এই তথ্য সম্পর্কে আরও বিস্তারিত তথ্য জানার থাকলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন অথবা নিচে কমেন্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ!

শেয়ার করুন!

লেখক সম্পর্কে:

স্বাগতম! মো: নাজমুল ইসলাম একজন ওয়েব ডেভলোপার। আমি দীর্ঘদিন ধরে ওয়ার্ডপ্রেস, পিএইচটি, পাইথন ও অন্যান্য প্রোগ্রামিং ভাষা নিয়ে কাজ করছি। এই ওয়েব সাইটে আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে আপনাদের জন্য বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সেরা কন্টেন্ট লিখব ইনশাআল্লাহ!

আপনার মতামত লিখুন!

Your email address will not be published. Required fields are marked

{"email":"Email address invalid","url":"Website address invalid","required":"Required field missing"}
error: বিষয়বস্তু কপিরাইট সুরক্ষিত !!