সারা বিশ্বে অনেক ধরনের Content Management System (CMS) রয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় CMS হচ্ছে WordPress। যা এতটাই জনপ্রিয় যে সবচেয়ে বেশির ভাগ Content Management website তৈরি করা হয় এই WordPress CMS ব্যবহার করেই। WordPress এর সহজতর ব্যবহার ও এটি দ্বারা ওয়েব সাইট তৈরি করা অনেক সহজ বলেই এটি দিন দিন সবার কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠছে। তবে WordPress এ কমন একটা সমস্যা রয়েছে আর তা হলো নিরাপত্তা ঝুঁকি কেননা এখানে অনেক ধরনের প্লাগিন বা থিম ব্যবহার করা যা যে কেউ সংগ্রহ করতে পারে। এর ফলে অনেকে ঐ সমস্ত থিম বা প্লাগিনের দূর্বলতা খুঁজে আমাদের WordPress website এর ক্ষতি করতে পারে। তাই আজ আমরা জানব এরকম ক্ষতি হলে বা সম্ভাবনা তৈরি হলে কিভাবে google drive এর মাধ্যমে WordPress website backup রেখে পুনরায় এর সমাধান করা যায়।

তাহলে কি WordPress নিরাপদ নয়!

বিষয়টি আসলে তা নয় WordPress নিরাপত্তার দিক থেকে অনেক সুরক্ষিত। অনেক বড় বড় প্রতিষ্টান তাদের ব্যবসায়িক কাজে নানান ধরনের লেনদের করতে WordPress দিয়ে তৈরি করা website ব্যবহার করে।

শুধু তাই নয় WordPress দিয়ে তৈরি করা ই-কমার্স ওয়েবসাইট দিয়ে বিভিন্ন পণ্যদ্রব্য কেনাবেচা ও অর্থ লেনদেন করা হচ্ছে। তাই একে দূর্বল CMS ভাববার কোন অবকাশ নেই। সুতরাং, নিঃসন্দেহে বলা যায় WordPress একটি নিরাপদ ও শক্তিশালি Content Management System।

যা দিয়ে আপনি আপনার ওয়েব সাইটকে সর্বাধিক নিরাপত্তার সাথে খুব সহজেই সব কিছু ম্যানেজ করতে পারেন। কিন্তু যেহেতু প্লাগিন ও থিমের এবং অন্যান্য তথ্য বা source code যে কেউ দেখতে পারে তাই সকল ধরনের নিরাপত্তা ঝুঁকি থেকে বাঁচতে ওয়েব website এর backup রাখা যেতেই পারে।

কেন WordPress website backup রাখা প্রয়োজন:

Website backup system


আমরা সবাই WordPress দিয়ে ওয়েব সাইট তৈরি করার সময় বিভিন্ন ধরনের থিম ও প্লাগিন ব্যবহার করে থাকি। এসব একই ধরনের থিম ও প্লাগিন অনেকেই ব্যবহার করতে পারে, আবার যেগুলোর Source Code চাইলেই সবাই দেখতে পারে।

তাই এর ফলে হ্যাকাররা আপনার ওয়েব সাইটে কি ধরনের থিম বা প্লাগিন ব্যবহার করছেন তা জেনে সে অনুযায়ী সেগুলোর Source Code দেখে নানান ছক কষতে পারে। হ্যাকার আপনার ওয়েব সাইটের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নিতে পারে বা অন্য কোন ক্ষতি করতে পারে।

আর এরকম হলে তা আপনার জন্য অনেক দুঃখজনক ও হতাশাজনক একটি বিষয়ে হয়ে যাবে। তাই যাতে ভবিষতে কোন ক্ষতির সম্ভাবনা সৃষ্টি হলে যাতে দ্রুত এর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারেন এ জন্য website এর backup রাখা অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ।

শুধু ওয়েব website backup রাখলেই হবে না, চাই যত দ্রুত সম্ভব ওয়েব সাইটকে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা। ওয়েব সাইটের মধ্যে এমন কোন সিস্টেম রাখতে হবে যে যাতে করে খুব দ্রুত website backup রাখা যায় ও পুনরায় ওয়েব সাইটকে ফিরিয়ে আনা যায়। আশা করছি ওয়েব সাইটের backup এর গুরুত্ব বুঝতে পেরেছেন।

কেন আমরা নির্দিষ্ট করে একটি প্লাগিনের কথা বলবো:

Website security system

এখানে আমরা আপনাকে বলব কিভাবে আপনি google drive এর মাধ্যমে WordPress website backup রাখবেন ও যে কোন সমস্যায় পড়লে পুনরায় ওয়েব সাইটকে ফিরিয়ে আনবেন।

তাই আমরা নির্দিষ্ট করে একটি প্লাগিন সম্পর্কে আপনাকে বিস্তারিত বলবো যাতে আপনি একটি পূর্ণাঙ্গ সমাধান ব্যবহার করে আপনার website এর backup রাখতে পারেন ও ওয়েব সাইটকে ফিরিয়ে আনতে পারেন।

ভবিষতে আমরা এই ধরনের আরও কিছু প্লাগিন নিয়ে আলোচনা করব। আমরা এখানে নির্দিষ্ট একটি প্লাগিন সম্পর্কে বলার উদ্দেশ্য হচ্ছে যাতে আপনি পূর্নাংঙ্গ সকল তথ্য জানতে পারেন ও বুঝতে পারেন।

কিভাবে website backup রাখবেন:

আমরা এখানে আপনাকে বলব কিভাবে একটি WordPress website কে সহজেই Backup রাখবেন এবং কোন সমস্যায় পড়লে দ্রুত ওয়েব সাইটকে ফিরিয়ে আনবেন।

আমরা Migration, Backup, Staging – Wpvivid নামের একটি বিশেষ ধরনের প্লাগিন নিয়ে কাজ করছি। পর্যায়ক্রমে আরও কিছু প্লাগিন নিয়ে কাজ করব।

 ১.  প্রথমে আপনার ওয়েব সাইটে Migration, Backup, Staging – Wpvivid প্লাগিনটি ইন্সটল করে নিতে হবে। যা আপনি ওয়েব সাইটের Add New Plugin মেনু থেকে ইন্সটল করতে পারবেন অথবা WordPress.org থেকেও বিনামূল্যে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন ও ব্যবহার করতে পারবেন।

migration, backup, staging plugin

 ২.  এরপর প্লাগিনটি অ্যাকটিভ করার পর বিশেষ কিছু সেটিংস ঠিক করে নিতে হবে। যাতে আপনি সহজে বাকি কাজগুলো করতে পারেন।

 ৩.  মেনুবার থেকে ঐ প্লাগিনের মেনু Wpvivid Backup দেখতে পাবেন। সেখান থেকে Backup & Restore মেনুতে ক্লিক করে ঐ পেজে যেতে হবে।

WordPress menu bar

 ৪.  উপরের দিকে অনেক ধরনের ট্যাব দেখতে পাবেন। এই ট্যাবগুলিতেই সমস্ত বিষয় আছে, সেখান থেকে Remote Storage ট্যাবে যেতে হবে। এখানে আপনি অনেক ধরনের Backup system দেখতে পাবেন।

আপনি Google drive, Dropbox, Microsoft OneDrive, Amazon S3, DigitalOcean Spaces, FTP ও SFTP এর মাধ্যমে backup নিতে পারবেন।

Remote Storage System Plugin

 ৫.  Remote Storage ট্যাব থেকে আপনি কিভাবে আপনার ওয়েব সাইটের backup নিতে চান তা নির্বাচন করতে হবে। ধরুন আমরা google drive এর মাধ্যমে আমাদের ওয়েব সাইটের ব্যাকআপ নিতে চাই।

 ৬.  Google drive এর মাধ্যমে backup নিতে চাইলে Google drive Option এর উপর ক্লিক করুর। তারপর Authenticate with google drive বাটলে ক্লিক করে google drive সাথে API সেট করে নিতে হবে।

remote storage with google drive

 ৭.  এরপর Google আপনাকে এই অ্যাপ্লিকেশনটি সাথে sign-in করতে বলবে এবং কিছু বিষয়ে পারমিশন দিতে বলবে। পারমিশন দিয়ে Continue অপশনে ক্লিক করলেই google এর সাথে Authenticate হয়ে যাবে ও আপনাকে আপনার ওয়েব সাইটে ফিরিয়ে নিয়ে আসবে।

Sign up with google

 ৮.  Remote Storage ট্যাব থেকে google drive চিহ্নে ক্লিক করে alias ঘরে একটা আনইউনিক নাম দিয়ে “add now” বাটনে ক্লিক করতে হবে। Alias হিসেবে এমন নাম ব্যবহার করতে হবে যাতে আপনি সহজেই আপনার ওয়েব সাইটের backup file কে চিনতে পারেন।

website backup alias

 ৯.  এরপর ওয়েব সাইট ব্যাকআপ রাখতে Backup & Restore ট্যাবে গিয়ে “Database + Files (WordPress Files)”, “Send Backup to Remote Storage:” ও “This backup can only be deleted manually” অপশনগুলোতে চেক মার্ক দিয়ে “Backup Now” বাটনে ক্লিক করলেই ওয়েব সাইটটি google drive এ ব্যাকআপ নেওয়া শুরু হয়ে যাবে।

website backup and restore

১০. আবার নির্দিষ্ট সময় পরপর schedule backup নিতে উপরের ট্যাবগুলো থেকে Schedule ট্যাবে যেতে হবে। এরপর “Enable backup schedule” এবং আপনি কতদিন পরপর ওয়েব website কে backup রাখবেন তা “12Hours, Daily, Weekly, Fortnightly, Monthly” নির্বাচন করে চেক মার্ক দিতে হবে।

website schedule backup

নিচের দিক থেকে আপনি কি ধরনের সিস্টেমে ব্যাকআপ রাখতে চাচ্ছেন তা নির্বাচন করে “Save Changes” বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনার সেট করা নির্দিষ্ট সময় পরপর schedule backup নেওয়া শুরু করবে আপনার ওয়েব সাইট।

schedule backup

১১. আপনি চাইলে backup ফাইল ডাউনলোড করেও অন্য কোন ভাবে সংরক্ষণ করতে পারেন। Backup ফাইল ডাউনলোড করতে Backup & Restore মেনুতে যেতে হবে। এর পর Backup & Restore ট্যাবের নিচে দিকে backup ফাইলগুলো দেখতে পারবেন। সেখান থেকে আপনি যে তারিখের backup ডাউনলোড করতে চাচ্ছেন তা ডাউনলোড করতে পারবেন।

Download website back file

কিভাবে WordPress website Restore করবেন:

আমাদের ওয়েব সাইটে অনেক ধরনের সমস্যা হতেই পারে। যেমন: ম্যালওয়্যার বা অন্য কোন ভাইরাস ঢুকতে পারে অথবা কেউ Script চালিয়েও ক্ষতি করতে পারে।

অথবা ধরুন আপনি কাজ করার সময় অসাবধান বশত ভুল ক্রমে আপনার ওয়েব সাইট ডিলিট হয়ে যেতে পারে। এই ধরনের সমস্যায় পড়লে আপনাকে দ্রুত ওয়েব সাইট ফিরে আনতে হতে পারে।

তাই আমরা এখন আপনাকে বলব এরকম কোন কিছু হলে কিভাবে আপনি ওয়েব সাইটকে দ্রুত Restore করে ফেলতে পারেন।

Website restore final

পদ্ধতি ০১: ম্যালওয়্যার বা ভাইরাস আক্রান্ত হলে অথবা অন্য কোন সমস্যা হলে:

ধরুন আপনি ওয়েব সাইটে হঠাৎ করে নতুন কোন কিছু ব্যবহার করতে গিয়ে সমস্যায় পড়লেন। আপনার ওয়েব সাইটটি অন্য কোন ওয়েব সাইটে Redirect হয়ে যাচ্ছে অথবা ম্যালওয়্যার বা অন্য কোন ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হলো।

তখন আপনি পূর্বের ব্যাকআপ থেকে আপনার ওয়েব সাইটটি Restore করে নিতে পারবেন। তাহলে সমস্যার সমাধান হয়ে গেল। আবার ভুল বশত Admin pannel থেকে সবকিছু ডিলিট হয়ে গেল, তবুও আপনি ওয়েব সাইট পুনরায় Restore করতে পারবেন।

Restore কিভাবে করবেন:

 ১.  Admin pannel থেকে Wpvivid Backup মেনু হতে Backup & Restore এ যেতে হবে, তাহলে ঐ পেজের নিচের দিকে আপনার ব্যাকআপ ফাইলগুলো দেখতে পারবেন।

 ২.  সেখান থেকে আপনি যে ব্যাকআপ ফাইলটি Restore করতে চাচ্ছেন, সেই ফাইলের ডান পাশে থাকা Restore বাটনে ক্লিক করলেই আপনার ওয়েব সাইটি Restore হয়ে যাবে এবং আবার পূর্বের মত কাজ করতে পারবেন।

পদ্ধতি ০২: পুরো সিস্টেমটি নষ্ট হয়ে গেলে অথবা অন্য হোস্টিং এ Website Restore করতে চাইলে:

আপনার হোস্টিং সার্ভিসের কোন সমস্যা হলো বা সার্ভার ক্রাস করলো অথবা অন্য কোন কারনে আপনার WordPress website টি ডিলিট হয়ে গেল। কিংবা ধরুন আপনি Hosting provider পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন।

তখন যাতে সামান্য কিছু কাজ করেই আপনার ওয়েব সাইটকে পুনরায় Restore করতে পারেন এরকম বিষয় নিয়ে আমরা এখন কথা বলব।

 ১.  যেহেতু আমাদের ওয়েব সাইটের ব্যাকআপ আমরা google drive এ পূর্বেই রেখেছি তাই সেই ফাইলগুলো শুরুতেই আমরা ডাউনলোড করে নিব। এখানে শুধুমাত্র সর্বশেষ backup ফাইলটি ডাউনলোড না করে সবগুলো ডাইনলোড করে নিতে হবে।

 ২.  এরপর নতুন করে সেটআপ করা WordPress website এ গিয়ে পুনরায় Migration, Backup, Staging – Wpvivid প্লাগিনটি ইন্সটল করে নিতে হবে ও অ্যাক্টিভ করে নিতে হবে।

 ৩.  তারপর Admin pannel থেকে Wpvivid Backup মেনু হতে Backup & Restore এ যেতে হবে নিচের দিকে আপলোড অপশনে গিয়ে সব ফাইলগুলো আপলোড করে দিতে হবে।

 ৪.  আপলোড হয়ে গেলে একই পেজে আবার ব্যাকআপ ফাইলগুলো দেখতে পারবেন। সেখান থেকে আপনার নির্দিষ্ট ব্যাকআপ ফাইলে ডান পাশে একটি Restore  বাটন দেখতে পারবেন। Restore বাটনে  ক্লিক করলেই আপনার ওয়েব সাইট পুনরায় Restore হয়ে যাবে।

শেষ কথা:

উপরের বিষয়গুলো আমরা নিজে পরীক্ষা করার পর আপনাদের কাছে শেয়ার করছি। এখানে আমাদের উদ্দেশ্য আপনাদের একটি পূরনাংঙ্গ বিষয় বোঝানো। বিশেষ কোন কিছু Review করার জন্য নয়। আপনি যদি এই প্লাগিনটি ব্যবহার করতে না চান তাহলে অন্য কোন প্লাগিন ব্যবহার করেও কাজ করতে পারবেন। পরবর্তীতে আমরা আরও বিশেষ বিশেষ কিছু প্লাগিন নিয়ে আপনাদের কাছে আলোচনা করব। ধন্যবাদ!

শেয়ার করুন!

লেখক সম্পর্কে:

স্বাগতম! মো: নাজমুল ইসলাম একজন ওয়েব ডেভলোপার। আমি দীর্ঘদিন ধরে ওয়ার্ডপ্রেস, পিএইচটি, পাইথন ও অন্যান্য প্রোগ্রামিং ভাষা নিয়ে কাজ করছি। এই ওয়েব সাইটে আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে আপনাদের জন্য বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সেরা কন্টেন্ট লিখব ইনশাআল্লাহ!

আপনার মতামত লিখুন!

Your email address will not be published. Required fields are marked

{"email":"Email address invalid","url":"Website address invalid","required":"Required field missing"}
error: বিষয়বস্তু কপিরাইট সুরক্ষিত !!