ওয়েবসাইট আমরা প্রতিদিন কোন না কোন কাজে ব্যবহার করি। নিউজ পড়া, ভিডিও দেখা, একে অন্যের সাথে তথ্যের আদান প্রদান, লেনদেনসহ আরোও নানান কাজে ব্যবহার করি। অনলাইন বিভিন্ন ধরণের সার্ভিস প্রদান করি আমরা এই ওয়েব সাইটের মাধ্যমে। কিন্ত আমাদের এই ওয়েব সাইটটিই যদি অব্যবহার যোগ্য হয়ে যায় তাহলে কতই না আমরা সমস্যায় পড়ি। তাই আমরা আজ এর সমাধান খুঁজে বের করার চেস্টা করবো। আপনার সাইটটি অন্য আরেকটি ওয়েব সাইটে Redirect হয়ে যাচ্ছে বা অন্য কোন পেজে চলে যাচ্ছে যেটি আপনার ওয়েব সাইটের সাথে সম্পর্কযুক্ত নয়। তাহলে আপনি আমাদের পদ্ধতিগুলো অনুস্বরণ করে আপনার সাইটকে সুরক্ষিত করতে পারেন। হতেও পারে আপনি এমন কোন প্লাগিন বা কোড ব্যবহার করেছেন যেটিতে সহজে ভাইরাস, malware অথবা কোনো Code injection করা গিয়েছে। এর ফলে আপনা ওয়েব সাইটের কোন পেজ বা পোস্ট থেকে সরাসরি অন্য কোন ওয়েব সাইটে চলে যাচ্ছে। আজ আমরা জানবো এরকম  সমস্যা হলে কিভাবে আমরা আমাদের ওয়েব সাইটকে সুরক্ষিত করব।

Malware বা Redirect থেকে বাচতে নিচের পদ্ধতি অবলম্বণ করতে পারি:

 ০১.   আমাদের ব্যবহৃত সকল extra code বা CSS কপি করে অন্য কোথাও Save করে অথবা উাউনলোড করে রাখব।

 ০২.  আমাদের সাইটে ব্যবহৃত Hosting Provider এর মাধ্যমে অথবা যদি সুযোগ থাকে তাহলে নিজেই পুরো Directory টি স্ক্যান করে নিব। এর ফলে যদি কোন ভাইরাস থাকে সেটি ডিলিট হয়ে যাবে।

এরপরও কোন কোন ওয়েব সাইটে একই ধরণের  সমস্যা থাকতে পারে। আমাদের পদ্ধতিগুলো অনুস্বরণ করুন আমরা শেষ পর্যন্ত ভাইরাস বা malware মুক্ত করে ছাড়ব।

Virus Injection

 ০৩.   সাইটে অব্যবহৃত সকল থিম, প্লাগিন ডিলিট করে ফেলব যাতে করে অতিরিক্ত কোনে ধরণের অব্যবহৃত কোন ফাইল-ফোল্ডার না থাকে।

 ০৪.  ব্যবহৃত সকল প্লাগিন ডিলিট করে দিয়ে নতুন করে আবারও আপলোড  করব। এছাড়াও থিম ও প্লাগিনের Directory তে যদি আরও কোন অতিরিক্ত ফাইল-ফোল্ডার থাকে সেগুলিও ডিলিট করে ফেলব।

 ০৫.  আগে ব্যবহার করা হয়েছে এমন আপনার প্রয়োজনীয় সকল থিম ও প্লাগিন নতুন করে আপলোড করব।

Wordpress - https://answerandsolution.com

 ০৬.   সর্বশেষ ওয়েব সাইটে ব্যবহৃত WordPress Core file or folder এর মধ্যে থেকে শুধুমাত্র: wp-config.php || .htaccess || wp-content || ফোল্ডার ছাড়া সব ফাইল-ফোল্ডার ডিলিট করে দিয়ে নতুন করে আপলোড করব।

উপরের পদ্ধতিগুলো ব্যবহার করে  আশা করছি ইতোমধ্যে আপনার সমস্যার সমাধান কিছুটা হলেও সম্ভব হয়েছে।

Wordfence Security – Firewall & Malware Scan বিনামূল্যেই আপনি ব্যবহার করতে পারছেন এবং সেই সাথে প্রিমিয়াম সার্ভিস নিয়ে আপনার ওয়েব সাইট কে সর্বাধিক সুরক্ষিত করতে পারবেন। 

Custom থিম বা প্লাগিনের ক্ষেত্রে:

যদি আপনার থিম বা প্লাগিন Custom হয় অথবা এমন কোন থিম বা প্লাগিন ব্যবহার করেছেন এখন এর ব্যকআপ নেই তাহলে নিচের পদ্ধতিগুলো:

আমরা অনেক সময় অনেক পুরনো থিম ও প্লাগিন ব্যবহার করে থাকি যেগুলোর নতুন কোন ভার্সন পাওয়া যায় না অথবা অনেকে custom থিম বা প্লাগিনের ব্যবহার করে থাকি যেগুলোরও কোন ব্যকআপ থাকে না। এবার আমরা সেই পদ্ধতিগুলো শিখব।

থিম:

 ০১.   থিমের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফাইল index.php, header.php, footer.php ফাইলগুলো আমরা ভালোভাবে দেখবো যদি নীচের ছবির মত কোন কোড বা ঐ ৩ ফাইলে ব্যতিক্রম কোন ধরণে কোড পান তা ডিলিট করে ফেলতে হবে।

malware

 ০২.  থিমের প্রতিটি ফোল্ডারে গিয়ে দেখতে হবে যাতে করে কোন আচেনা ফাইল-ফোল্ডার না থাকে, অচেনা ফাইল-ফোল্ডার পেলে ( যেমন: __djhejk, jkdjkj-j444 এই ধরনের ) তা ডিলিট করে দিতে হবে।

 ০৩.  Malware বা Injection হলে js file গুলোতে বেশিরভাগ সময় কিছু অতিরিক্ত কোড অ্যাড হয়ে যায়। নিচের ছবির মত কোন কোড বা কিছু দেখতে পেলে তা ডিলিট করে দিতে হবে।

Malware - https://answerandsolution.com/

 ০৪.  কোন ফাইলে ভাইরাসটি আছে তা জানতে আমরা Wordfence Security – Firewall & Malware Scan এই প্লাগিনটি ব্যবহার করে দেখতে পারি অথবা ভবিষতে এধরণের সমস্যা থেকে ওয়েব সাইটকে সুরক্ষিত রাখতে এটি ব্যবহার করতে পারেন।

এছাড়াও যদি কোন প্লাগিন ব্যবহার করতে না চান অথবা আপনার ওয়েব সাইট যদি WordPress এর না হয় তাহলে sucuri site checker ওয়েব সাইটটি ব্যবহার করেও দেখতে পারবেন।

যেখানে আপনার সাইটে ভাইরাসটি আছে তা দেখো সে অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।

Sucuri Site Cheaker একটি অসাধারন ওয়েব সাইট। এটি বিনামূল্যেই আপনি ব্যবহার করতে পারছেন এবং সেই সাথে প্রিমিয়াম সার্ভিস নিয়ে আপনার ওয়েব সর্বাধিক সুরক্ষিত করতে পারবেন। 

প্ল্যাগিন:

 ০১.  প্লাগিনের index, header, footer ফাইলগুলোও ভালোভাবে দেখতে হবে। যদি নীচের ছবিরমত কোন কোড বা এরকমের ব্যতিক্রম ধরণের কোন কোড পান তবে তা ডিলিট করে ফেলতে হবে।

Virus Injection

 ০২.  প্লাগিনের প্রতিটি ফোল্ডারে গিয়ে কোন আচেনা ফাইল-ফোল্ডার পেলে ( যেমন: __djhejk, jkdjkj-j444 এই ধরনের ) তা ডিলিট করে দিতে হবে।

 ০৩.  Malware বা Injection হওয়ার সম্ভবনা মনে করলে js file গুলোতে গিয়ে নিচের ছবির মত কোন কিছু দেখতে পেলে তা ডিলিট করতে হবে।

Malware - https://answerandsolution.com/

 ০৪.  কোন ফাইলে ভাইরাসটি আছে তা জানতে আমরা Wordfence Security – Firewall & Malware Scan প্লাগিনটি ব্যবহার করে অথবা Sucuri Site Checker সাইটটি ব্যবহার করতে পারি। যেখানে সাইটের কোথায় ভাইরাসটি আছে তা দেখে ডিলিট করে দিতে হবে বা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

উপরের সকল তথ্য আমরা আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে আপনাদের কাছে শেয়ার করেছি। আমরা আশা করছি পদ্ধতিগুলি ব্যবহার করে আপনি আপনার ওয়েব সাইটকে সুরক্ষিত করতে পারবেন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

শেয়ার করুন!

লেখক সম্পর্কে:

স্বাগতম! মো: নাজমুল ইসলাম একজন ওয়েব ডেভলোপার। আমি দীর্ঘদিন ধরে ওয়ার্ডপ্রেস, পিএইচটি, পাইথন ও অন্যান্য প্রোগ্রামিং ভাষা নিয়ে কাজ করছি। এই ওয়েব সাইটে আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে আপনাদের জন্য বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সেরা কন্টেন্ট লিখব ইনশাআল্লাহ!

আপনার মতামত লিখুন!

Your email address will not be published. Required fields are marked

{"email":"Email address invalid","url":"Website address invalid","required":"Required field missing"}
error: বিষয়বস্তু কপিরাইট সুরক্ষিত !!